1. liton@somoyerbarta24.net : জাগরন বার্তা২৪ ডটকম ডেস্কঃ : জাগরন বার্তা২৪ ডটকম ডেস্কঃ
  2. admin@codeforhost.com : News Desk :
যে ৭ অভ্যাস আপনার জীবনে হতাশা ঘিরে থাকবে | জাগরন বার্তা
বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:৩০ পূর্বাহ্ন
১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
নওগাঁয় বাবার তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকীর দিনে কোরআন শরিফ পোড়ালো ছেলে – অভিযুক্ত ছেলে গ্রেফতার  নওগাঁয় মুক্তিযোদ্ধা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা রাণীনগরে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন নওগাঁয় অভ্যন্তরিন আমন ধান সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন দৌলতপুরে আসছে হাফীজুর রহমান কুয়াকাটা সাটু‌রিয়ার দিঘু‌লিয়া ইউনিয়‌নের এফ‌পিআইয়ের বিরু‌দ্ধে অ‌নিয়‌মের অ‌ভি‌যোগ নাগরপুরে তিন সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু দৌলতপুরে চকমিরপুর বঙ্গনূর ক্রীড়া সংঘের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রাণীনগরে যুবলীগের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন নাগরপুরে প্রেমিক প্রেমিকাসহ পালাতে গিয়ে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জন নিহত

যে ৭ অভ্যাস আপনার জীবনে হতাশা ঘিরে থাকবে

রিপোর্টার: জাগরন বার্তা২৪ ডটকম ডেস্কঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৬ মে, ২০২০
  • ১২৪ বার পাঠিত
20200516 111628

হতাশা আপনাকে ঘিরে ধরার সুযোগ খুঁজতে থাকে সব সময়। আপনি একটুখানি প্রশ্রয় দিলেই সে এসে আপনাকে জড়িয়ে ধরবে। হতাশা বাড়ানোর মতো হাজারটা কারণ চারদিকে ছড়িয়ে আছে। সংক্রমণ নিয়ে দুশ্চিন্তা, আর্থিক অনিশ্চয়তা, কাছের মানুষের খারাপ ব্যবহার- এরকম আরও অনেক কারণে হতাশা বাড়তে পারে। কিন্তু আপনার প্রতিদিনের কিছু অভ্যাসও এই হতাশার কারণ হতে পারে তা জানেন কি? জেনে নিন কোন অভ্যাসগুলো হতাশা বাড়ানোর জন্য দায়ী-

অতিরিক্ত কফি পান: ক্লান্তি কাটাতে বা অলসতা দূর করতে কফি পান করার অভ্যাস আছে অনেকেরই। কিন্তু ব্লাডপ্রেসার যখন লো তখনও অত্যধিক কফি পান করলে উদ্বেগ বাড়ে। এতে হৃদস্পন্দন স্বাভাবিকের তুলনায় দ্রুত হয়। নার্ভাসনেসও বাড়ে। ফলে বাড়ে উদ্বেগ। উদ্বেগের হাত ধরে আসে হতাশা।

ঘুমের সমস্যা: উদ্বেগ বাড়ানোর অন্যতম নেপথ্য কারণ। পর্যাপ্ত ঘুম না হলে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। অবসাদ বাড়ে। শরীর ক্লান্ত এবং অবসন্ন হয়ে পরে। কাজে মন বসে না। হতাশা বাড়ে।

নেতিবাচক চিন্তা: মনে যদি সারাক্ষণ নেতিবাচক চিন্তা ঘোরে তাহলে হতাশা কমবে কী করে? তাই যখনই মনে খারাপ চিন্তা আসবে ভালো কথা বা ইতিবাচক কোনো ঘটনার কথা ভাবুন। নইলে হতাশা আপনার পিছু ছাড়বে না।

অতিরিক্ত ফোন ব্যবহার: অতিরিক্ত ফোন ব্যবহার আপনার হতাশার কারণ হতে পারে। কে ফোন করল, কতবার করল, মেসেজ এলো কি না এসব নিয়ে দুশ্চিন্তা। কোনোকিছু মনের মতো না হলেই বাড়ে হতাশা। তাই প্রয়োজনের বাইরে যন্ত্র নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি না করাই ভালো।

খাবারে অনিয়ম: ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া না করলেও কিন্তু হতাশা বাড়তে। কারণ, শরীরে পর্যাপ্ত খাবার না খেলে এনার্জি লেভেল কমে। শরীর অবসন্ন হয়। আপনি অবসাদে ভোগেন। ফলাফল, দুশ্চিন্তা আর হতাশা।

একাকীত্ব: একাকীত্ব মানে কিন্তু একা থাকা নয়। অনেক মানুষের ভিড়েও আপনি একাকীত্ব অনুভব করতে পারেন। তাই যখনই দেখবেন দুশ্চিন্তা বাড়ছে হয় ফোনে যোগাযোগ করুন বন্ধুর সঙ্গে। যত কথা বলবেন এই সময়ে ততই মনের হতাশভাব কমবে।

নিজের সঙ্গে নেতিবাচক কথা: এই মুহূর্তে আমাদের চারপাশের পরিবেশ ভীষণ নেতিবাচক। তাই ইতিবাচক চিন্তা এর মধ্যে করা সত্যিই কষ্টের। তুচ্ছ কারণে একে অন্যকে সবসময় খারাপ মন্তব্য করছে বা ট্রোল করছে। এতে হতাশা আরও বাড়ছে। তবু তার মধ্যেই যারা ভালো কথা বলেন তাদের কথা মনে রেখে নিজের মনকে ইতিবাচক করুন।

Facebook Comments

লাইক দিয়ে সবার আগে. সব খবর এর আপডেট

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

আমাদের ফেসবুক পেজ

© All rights reserved © 2020 JagoronBarta24.com
Theme Customized By codeforhost.Com
codeforhost-somoyerba149